বৃহস্পতিবার, ১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ছাঁদে ডেকে নিয়ে শিশুর দিকে কু-নজর

সেরাকণ্ঠ ডট কম :
জুলাই ৩১, ২০২৩
news-image

সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় ৭ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টায় ৫ লাখ টাকা জরিমানায় বিচার শেষ হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সলঙ্গা থানার নলকা ইউনিয়নের চকমনোহরপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, গত শনিবার (২৯ জুলাই) বিকালে ৭ বছরের এক শিশুকে নিজ বাড়ির ছাঁদে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ চেষ্টা করে একই গ্রামের আকতার হোসেনের ছেলে তপু সেখ (১৩)। পরে ভুক্তভোগী শিশুটি কাঁদতে কাঁদতে তার পরিবারের কাছে গিয়ে ঘটনা খুলে বলে।

এরপর স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য আবুল কালাম আজাদকে ঘটনার বিস্তারিত খুলে বলেন ও বিচার চান শিশুটির বাবা। ঐ দিন রাতেই ছেলের বাড়ীতে সালিশ বসে। গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য ও বিএনপি নেতা আবুল কালাম আজাদ, আকবর আলী, শহিদুল ইসলাম, আলিমু উদ্দিন, আবু সাইদ শেখ, নুরুল আলম যোগসাজশ করে অভিযুক্ত তপুকে পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা করেন। এবং রাতেই পাঁচ লাখ টাকার চেক নিয়ে নেয়। এরপর সালিশদাররা শিশুটির পরিবারকে মামলা বা থানায় অভিযোগ দিতে নিষেধ করেন। এ বিষয়ে কথা বলতে অভিযুক্ত তপুর বাবা আকতারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, যা হবার হয়েছে সেটা আমরা গ্রামবাসী রাতে বসেই সমাধান করে নিয়েছি।

ধর্ষণের চেষ্টার বিচার পাঁচ লাখ টাকায় সমাধান করা সেই ইউপি সদস্য আবুল কালামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি কি সালিস করে অন্যায় করে ফেলেছি। আমি সিএনজির মধ্যে আছি এখন কিচ্ছু বলতে পারবো না। পরবর্তীকালে তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। সালিশে উপস্থিত আলিমুদ্দিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন বিচারটিতে গ্রামের সবাই উপস্থিত ছিল। আমরা গোপনে কোন কিছু করিনি। সবার সামনেই সব করেছি।

এ বিষয়ে নলকা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবু বক্কার সিদ্দিকের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিষয়টি আমি অবগত নই। তবে একজন ফোন করে ছিল এ ধরনের ঘটনা ঘটেছে। সলঙ্গা থানার ওসি এনামুল হক বলেন, এমন কোনো বিষয় শুনিনি। যদি লিখিত অভিযোগ পাই, অবশ্যই আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।