বৃহস্পতিবার, ৯ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

প্রধানমন্ত্রীর ভোট চাওয়া আইনের লঙ্ঘন নয়: কাদের

সেরাকণ্ঠ ডট কম :
মার্চ ৩, ২০১৮
news-image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারি খরচে জনসভা করে ভোট চাওয়ার বিষয়ে বিএনপির সমালোচনার জবাব দিয়েছেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘শেখ হাসিনা শুধু প্রধানমন্ত্রী নন, তিনি আওয়ামী লীগের সভাপতিও। আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে নৌকার ভোট চাওয়ার অধিকার প্রধানমন্ত্রীর আছে। তাতে এখানে কোনও ব্যত্যয় ঘটেনি।’

শনিবার সকালে রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকায় ৭ মার্চ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের জনসভা সফল করতে লিফলেট বিতরণ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক।

গত ৩০ জানুয়ারি সিলেটে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী প্রচার উদ্বোধন করেন শেখ হাসিনা। এরপর ৮ ফেব্রুয়ারি তিনি বরিশাল, ২২ ফেব্রুয়ারি রাজশাহী এবং আজ ৩ মার্চ তিনি খুলনায় জনসভা করছেন।

প্রধানমন্ত্রীর এভাবে জনসভা করে ভোট চাওয়ার সমালোচনা করছে বিএনপি। তাদের দাবি, শেখ হাসিনা সরকারি খরচে এভাবে প্রচার চালাতে পারেন না। আর তাকে থামাতে বিএনপি নির্বাচন কমিশনে চিঠিও দিয়েছিল।

বিএনপির এই অভিযোগের বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘জনগণের কাছে যাওয়ার অধিকার নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রীর আছে, এখনও নির্বাচনের শিডিউল ঘোষণা হয়নি। এই প্রশ্নটা হতে পারে তখন, যখন নির্বাচন কমিশন নির্বাচনের শিডিউল ঘোষণা করবে।’

‘এই মুহূর্তে দেশের প্রধানমন্ত্রী তিনি যেসব উন্নয়ন করেছেন সেসব নিয়ে জনগণকে অবহিত করার অধিকার প্রধানমন্ত্রীর আছে।’

গত ২৬ ফেব্রুয়ারি মা বেগম ফজিলাতুন্নেছার মৃত্যুর পর আজই ওবায়দুল কাদের প্রথম রাজধানীতে কোনো কর্মসূচিতে যোগ দিয়েছেন। এ সময় তার কাছে গণমাধ্যম কর্মীরা জানতে চান বিএনপির আন্দোলন মোকাবেলায় সরকার কী ব্যবস্থা নেবে।

জবাবে কাদের বলেন, ‘তাদের কৌশল যদি রাজনৈতিক হয় তাহলে রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করব। তাদের কৌশল যদি সহিংসতার দিকে যায় তাহলে সেটার জবাবও আমাদের জানা আছে। যখন যেটা দরকার সেটাই করব।’

আগামী জাতীয় নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে জাতিসংঘ, ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং কমনওয়েলথকে বিএনপির চিঠি দেয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে কাদের বলেন, ‘নির্বাচনকে সামনে রেখে বিদেশি উপদেশের দিকে আওয়ামী লীগ তাকিয়ে নেই।’

‘একটা অংশগ্রহণমূলক, ফ্রি ফেয়ার এবং বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন আমরা করব। আমরা কারও উপদেশ, খয়রাতের দিকে তাকিয়ে নেই। আমাদের দেশের নিয়ম অনুযায়ী আমাদের দেশের গণতন্ত্র চলবে, নির্বাচন চলবে। কাজেই এ নিয়ে বাইরে থেকে কে চাপ দিল সেটা আমাদের বিবেচ্য বিষয় নয়।’

‘একটা ঐতিহ্যবাহী গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল হিসেবে আমরা জনগণের চাপকে গুরুত্ব দেই। আমাদের দেশের গণতন্ত্র আমরাই পরিচালনা করব।’

১৯৭১ সালের ৭ মার্চ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণের স্মরণে ৭ মার্চে একই উদ্যানে আওয়ামী লীগের সমাবেশ স্মরণকালের সর্ববৃহৎ সমাবেশ হবে বলেও দাবি করেন কাদের।