বৃহস্পতিবার, ৯ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

প্রমাণ না হওয়া পর্যন্ত ‘ভুয়া’ মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা বন্ধ নয়

সেরাকণ্ঠ ডট কম :
অক্টোবর ১৫, ২০১৭
news-image

‘ভুয়া’ মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে ভাতা নেয়ার অভিযোগ উঠলেই ভাতা বন্ধ না করার সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি। তদন্ত করার পর সত্যতা মিললেই ভুয়া মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা বন্ধের কথা বলেছে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি।

রোববার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত কমিটির ১৯তম বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়। কমিটির সভাপতি এ বি তাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ. ক. ম মোজাম্মেল হক, হুইপ ইকবালুর রহিম, স্বপন ভট্টচার্য এবং কামরুল লায়লা জলি বৈঠকে অংশ নেন।

বৈঠকের কার্যপত্র থেকে জানা যায়, কমিটির সদস্য হুইপ ইকবালুর রহিম বলেন, তার নির্বাচনী এলাকা ৮০ জন মুক্তিযোদ্ধার ভাতা বন্ধ করা হয়েছিল। এর মধ্যে ৫৩ জনের ভাতা চালু হলেও বাকি ২৭ জনের ভাতা এখনও বন্ধ। তারা দীর্ঘ ৩৮ বছর ভাতা পেয়েছেন। কিসের ওপর ভিত্তি করে, কাদের অভিযোগে তদন্ত না করেই তাদের ভাতা বন্ধ করা হয়েছে তা জানা দরকার। আর ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা প্রমাণিত না হওয়া পর্যন্ত ভাতা বন্ধ করা যাবে না।

এরপর মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব ড. অরূপ চৌধুরী বলেন, ইকবালুর রহিমের নির্বাচনী এলাকার ২৭ জন মুক্তিযোদ্ধার বন্ধ ভাতা চালু ব্যাপারে মন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা) একটি কমিটি গঠন করেছে।

এরপর কমিটির সভাপতি ভুয়া মুক্তিযোদ্ধার অভিযোগ উঠলেই ভাতা বন্ধ না করার সুপারিশ করেন এবং প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধারা যাতে সহজে সনদ নেই বিষয়ে গুরুত্বারোপ করেন।

এ ছাড়াও বৈঠকে উল্লেখ করা হয যে, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলকে একটি পূর্ণাঙ্গ অধিদফতরে রুপান্তরের জন্য বিভিন্ন পর্যায়ে কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। বৈঠকে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিবসহ মন্ত্রণালয় ও জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।