শনিবার, ২৬শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

চাল আমদানির শুল্ক কমে পাঁচ শতাংশ করা হচ্ছে

সেরাকণ্ঠ ডট কম :
আগস্ট ৮, ২০১৭
news-image

চালের আমদানি শুল্ক কমিয়ে পাঁচ শতাংশ করা হচ্ছে বলে সংসদীয় কমিটিকে জানিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। এর আগে চালের আমদানির ওপর ২৮ শতাংশ শুল্ক থাকলেও তা কমিয়ে ১০ শতাংশ নির্ধারণ করা হয়েছিল। সরকারের নতুন সিদ্ধান্তে চালের আমদানি শুল্ক দাঁড়াবে মাত্র পাঁচ শতাংশ।

মঙ্গলবার সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।

একই সঙ্গে বৈঠকে পেঁয়াজের দাম বাড়ার কারণ হিসেবে বন্যাকে দায়ী করে বলা হয়েছে, বন্যার কারণেই পেঁয়াজের দাম বেড়েছে। তবে গত বছরের একই সময়ের তুলনায় এখন দাম কম রয়েছে।

এতে আরও বলা হয়, ভারত থেকে বাংলাদেশে পেঁয়াজ আমদানি করা হয়ে থাকে। বর্তমানে বন্যার কারণে ভারতেও পেঁয়াজের দাম বাড়ছে। তাই বাংলাদেশেও দাম কিছুটা বাড়ছে।

বৈঠক শেষে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ জানান, চালের আমদানি শুল্ক নতুন করে আরও পাঁচ শতাংশ কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। শিগগির এ-সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, চালের মূল্য বৃদ্ধির লাগাম টানতে আমদানি বাড়ানোর লক্ষ্যে ঈদের আগে শুল্ক হার ২৮ শতাংশ থেকে এক লাফে ১০ শতাংশে নামিয়ে আনার ঘোষণা দিয়েছিল সরকার। ঈদের ছুটির পর ১ জুলাই থেকে ১০ শতাংশ শুল্ক চাল আমদানি শুরু করেন ব্যবসায়ীরা। আমদানি বাড়াতে আরও পাঁচ শতাংশ শুল্ক কমিয়ে আনা হচ্ছে।

কমিটির সভাপতি তাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে মঙ্গলবারের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন কমিটির সদস্য ও বাণিজ্যমন্ত্রীতোফায়েল আহমেদ, মোতাহার হোসেন, এনামুল হক, আ ক ম বাহাউদ্দীন, ছানোয়ার হোসেন, লায়লা আরজুমান বানু এবং মোহাম্মদ হাছান ইমাম খান।

বৈঠক শেষে কমিটির সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দীন বলেন, চাল, পেঁয়াজ, লবণসহ সব ধরনের জিনিসপত্রের দাম নিয়ে আলোচনা হয়েছে। মন্ত্রণালয় থেকে কমিটিকে জানানো হয়েছে, বন্যার কারণে পেঁয়াজের দাম কিছুটা বেড়ে গেছে। মুক্তবাজার অর্থনীতিতে সব কিছু এখন নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব নয়। আমাদের এখানে বন্যা হলে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি করে থাকি। কিন্তু এবার সেখানেও বন্যার কারণে দাম বেড়ে গেছে। ফলে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। তাছাড়া সামনে কোরবানি। এ কারণেও কিছুটা দাম বেড়েছে।

গত বছর একই সময়ের তুলনায় এবার পেঁয়াজের দাম কম রয়েছে দাবি করে বাহাউদ্দীন বলেন, দাম বৃদ্ধির বিষয়টি মšúণালয় মনিটর করছে। শিগগিরই সব ঠিক হয়ে যাবে।

চাল আমদানিতে শুল্ক আরও এক দফায় কমানোর সরকারি সিদ্ধান্তের কথা উল্লেখ করে কমিটির সদস্য বলেন, চালের শুল্ক আগের ২৮ শতাংশ থেকে কমিয়ে ১০ শতাংশ করা হয়েছিল। মঙ্গলবার আরও ৫ শতাংশ কমিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এখন আমদানি শুল্ক থাকছে মাত্র ৫ শতাংশ। আশা করা যায় এতে চালের দাম আরও কমে আসবে।

এ বিষয়ে কমিটির সভাপতি তাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, চালের দাম বাড়ার তো কোনো কারণ নেই। চালের যথেষ্ট মজুদ রয়েছে। বন্যায় জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি ও কিছু লোকের কারসাজির কারণে দামটা বেড়ে গেছে।

পেঁয়াজের দামের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘পেঁয়াজের দাম খুবই পড়ে গিয়েছিল। এখন এটা একটু বেড়ে গেছে। সবাইকে বলব ধৈর্য ধারণ করুন, কিছু দিনের মধ্যেই দাম কমে যাবে।’