শনিবার, ২৬শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

মেয়েদেরকে স্কুলে ফেরাতে বিনামূল্যে ন্যাপকিন

সেরাকণ্ঠ ডট কম :
জুলাই ১, ২০১৭
news-image

কেনিয়ায় স্কুলগামী ছাত্রীদের বিনামূল্যে স্যানিটারি ন্যাপকিন দিবে সেদেশের সরকার। এর ফলে কেনিয়ার স্কুলগুলোতে ছাত্রীদের ঝরে পড়ার সংখ্যা কমবে বলে কেনিয়া সরকার আশা করছে। কারণ এসব দরিদ্র পরিবারের ছাত্রীদের স্যানিটারি ন্যাপকিন বা প্যাড কেনারও সামর্থ্য নেই। কেনিয়া স্যানিটারি সামগ্রীর দামও তুলনামূলকভাবে বেশী।

অত্যন্ত দামী স্যানিটারি ন্যাপকিন কিনতে পারে না বলে প্রায় দশ লাখ ছাত্রী বছরে দুমাস স্কুলে/কলেজে যায় না বলে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ‘জানা আফ্রিকা ফাউন্ডেশন’।এখন সে ব্যয়ভারের দায়িত্ব নিয়েছে কেনিয়া সরকার।

এজন্য কেনিয়ার শিক্ষা আইন সংশোধন করা হয়েছে।এ সপ্তাহে কেনিয়ার প্রেসিডেন্ট উহুরু কেনয়াতা সাক্ষরিত সংশোধনীতে বলা হয়েছে, স্কুলে নিবন্ধিত প্রতিটি মেয়ে বিনামূল্যে যথেষ্ট সংখ্যক মানসম্মত স্যানিটারি ন্যাপকিন পাবে। ন্যাপকিনগুলো অবশ্যই নিরাপদ, পরিবেশবান্ধব এবং সহজে পঁচনশীল হতে হবে।

কেনিয়া যদিও প্রায় দশ বছর আগে স্যানিটারি ন্যাপকিন উৎপাদন সামগ্রীর উপর থেকে ট্যাক্স প্রত্যাহার করা হযেছে। তারপরও কেনিয়ার ৬৫% নারীর কাছে স্যানিটারি ন্যাপকিন খুব দামী পণ্য। সে কারণে ‘জানা আফ্রিকা ফাউন্ডেশনের’ মতো দাতব্য প্রতিষ্ঠানগুলো কেনিয়াজুড়ে মেয়েদেরকে বিনামূল্যে স্যানিটারি ন্যাপকিন সরবরাহ করে আসছে।

সানিটারি সামগ্রীর অতিরিক্ত দাম এবং নারী শিক্ষায় এর নেতিবাচক প্রভাব কেবল কেনিয়াতেই না। একই কারণে ভারত, নেপাল, আফগানিস্তান এবং সিয়েরা লিয়নেও ছাত্রীদের ঝরে যাওয়ার প্রবণতা লক্ষ্য করা যায়। হতবাক হওয়ার মতো বিষয় হলো, কেবল উন্নয়নশীল দেশ না খোদ ব্রিটেনের লিডস শহরের স্কুলগুলোতে স্যানিটারি সামগ্রী বিতরণের জন্য দাতব্য সংস্থা ‘ফ্রিডম ফর গার্লস’ এর প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।কারণ স্কুল থেকে ছাত্রীদের ঝরে পড়ার প্রবণতা দেখে লিডস প্রশাসনও উদ্বিগ্ন।