বৃহস্পতিবার, ২৪শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

শিশুদের নিয়ে বেড়াতে যাবেন যেখানে

সেরাকণ্ঠ ডট কম :
জুলাই ২, ২০১৭
news-image

ঈদের ছুটি চলছে। বাড়ির ছোট সদস্যকে যানজটের ঢাকায় কোথাওই ঘুরতে যাওয়া হয় না। তার উপর প্রচন্ড গরম। তার স্বাস্থ্যের কথা ভেবে ঘরই যেন সবচেয়ে নিরাপদ আশ্রয় হয়ে ওঠে। কিন্তু শিশুর মন তো চায় একটু খোলামেলা পরিবেশ, হইহুল্লোড়, ফূর্তি।

ঢাকা এখন একদম ফাকা। ঈদ উপলক্ষে সব বিনোদনকেন্দ্রই খোলা। এটাই সুযোগ শিশুকে নিয়ে ইচ্ছেমত ঘুরে বেড়ানোর। যেখানে যাবেন-

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্ক, গাজীপুর
সাফারি পার্কের মজাটা কিন্তু ভিন্নরকম। এখানকার পশুপাখীরা খুব সাহসী। আপনার সাথে সেলফী তুলতে চলে আসবে একেকজন। হালকা বৃষ্টি হলেই ময়ূর নাচ দেখিয়ে যাবে, একদম লাজ-লজ্জা নেই!

প্রাপ্তবয়স্ক জনপ্রতি পার্কে প্রবেশমূল্য ৫০ টাকা এবং ১৮ বয়সীদের নিচে প্রবেশমূল্য ২০ টাকা। গাড়িতে করে সাফারি পার্ক পরিদর্শনের জন্য প্রাপ্তবয়স্কদের প্রতিজনের টিকিট ১০০ টাকা। অপ্রাপ্তবয়স্কদের জন্য ৫০ টাকা। প্যাডেল বোট ভ্রমণ ৩০ মিনিট ২০০ টাকা।

 

ফ্যান্টাসি কিংডম, আশুলিয়া
ছোট-বড় সকলের জন্য রোমাঞ্চকর আনন্দ উল্লাসের জায়গা ফ্যান্টাসি কিংডোম। তবে যে রাইডেই চড়ুন না কেন আপনার এবং শিশুর নিরাপত্তা বেল্টটি বেঁধে নিন ঠিকমতো।

ঈদে পার্কটি খোলা থাকবে দুপুর ১২টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত। শিশুদের প্রবেশমূল্য ৩৫০-৫০০ টাকা, বড়দের বেলায় ৬৫০-৮০০ টাকা। ওয়াটার ওয়ার্ল্ডে প্রবেশমূল্য ৬৫০-৮০০ টাকা। তবে ঈদের সময়টা বিশেষ অফারেও টিকিট বিক্রি করা হয়।

নন্দন পার্ক, আশুলিয়া
প্রতিবছর ঈদে পার্কে কনসার্টের ব্যবস্থা করা হয়।

ঈদের সময় নন্দন পার্ক খোলা থাকবে বেলা সাড়ে ১১টা থেকে রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত। সব রাইডসহ প্রবেশমূল্য জনপ্রতি ৪৯০ টাকা।

ওয়ান্ডারল্যান্ড পার্ক, সায়েদাবাদ
ওয়ান্ডারল্যান্ড পার্ক ঈদের দিনগুলোতে খোলা সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। প্রবেশমূল্য জনপ্রতি ৫০ টাকা। রাইডের মূল্য ৩০ টাকা।

জাতীয় জাদুঘর, শাহবাগ
বিশাল সেই ডায়নোসরের কঙ্কাল, মূর্তিমান বাঘ, হরিণ, ময়ূর সব মিলিয়ে আমাদের জাতীয় জাদুঘর শিশুকে বিস্ময়ে হতবাক তো করবেই সাথে আছে শেখার মতো অনেক কিছু।

ঈদের সময় জাদুঘর খোলা থাকবে বেলা দুইটা থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত। টিকিটের মূল্য ৩ থেকে ১২ বছর বয়সীদের জন্য ৫ টাকা, ১২ বছরের বেশি বয়সীদের জন্য ১০ টাকা এবং বিদেশি দর্শনার্থীদের জন্য ৭৫ টাকা।

 

শিশুপার্ক, শাহবাগ
‘আমাদের দেশটা স্বপ্নপুরী’ গানের তালে আনন্দে মেতে ওঠার জন্য যথাযথ জায়গা শিশুপার্ক। রেলগাড়ি, নাগরদোলা, এরোপ্লেন কি নেই এখানে? শিশুকে নিয়ে ঘুরে আসুন এখানেই।

প্রতিবছর ঈদ উপলক্ষে শিশুদের জন্য ঈদ আয়োজন করে শিশুপার্ক কর্তৃপক্ষ। ঈদে শিশুপার্ক খোলা থাকবে সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত। প্রবেশমূল্য ৮ টাকা। তবে প্রতিটি রাইডে উঠতে হলে ৬ টাকার আলাদা আলাদা টিকিট কাটতে হবে।

জাতীয় চিড়িয়াখানা, মিরপুর
ঢুকতেই বানরের খাঁচা, আছে নানান রকম পাখি। বইয়ে ছবিতে দেখা অজগর, জ্যান্ত বাঘ, সিংহ সবই আছে এখানে। চিড়িয়াখানা শুধু শিশুদেরকেই না, আনন্দ দেয় বড়দেরকেও। ঈদের ছুটিতে আদরের সন্তানকে নিয়ে ঘুরে আসতে পারেন এখানে।

ঈদের সময় জাতীয় চিড়িয়াখানা খোলা থাকবে সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। প্রবেশমূল্য জনপ্রতি ১০ টাকা। দুই বছর পর্যন্ত শিশুদের জন্য টিকিট লাগবে না।