শুক্রবার, ২৫শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে ক্লাশ করছে হাজার হাজার কোমলমতী শিক্ষার্থী (ভিডিও)

সেরাকণ্ঠ ডট কম :
মে ২৬, ২০১৭

তারিক ইমন : সারা দেশের অনেক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে শিক্ষা কার্যক্রম চলছে। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে হাজার হাজার শিক্ষার্থী ক্লাশ করছে বলে জানা গেছে। এসব প্রতিষ্ঠানগুলোতে যে কোন সময় বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে। প্রশাসন সহ জনপ্রতিনিধিদের কাছে ধন্না দিয়ে আশ্বাস ছাড়া কিছুই মিলছেনা বলে জানিয়েছেন শিক্ষক-অভিভাবকরা।
জানা গেছে, গ্রীষ্ম-বর্ষা কিংবা শীতের মধ্যেও গাছ তলায় বসে ক্লাশ চলে যশোরের ঝিকরগাছার হাজিরালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। ১৯৭২ সালে একটি টিনশেড ঘরে স্কুলটি চালু হয়। ২০১৩ সালে হয় জাতীয়করণ হলেও স্কুলটির ভৌত অবকাঠামো বদলায়নি। দিন দিন আরো বেশি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠছে।
এলাকার একজন অভিভাবক বলেন, আমারা এসে দেখি আমাদের সন্তানেরা বাইরে বসে ক্লাশ করে। গরমের সময় প্রখর রোদে, বর্ষার বৃষ্টিতে ভিজে অনেক কষ্টে তারা ক্লাশ করছে। যশোর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তাপস কুমার অধিকারী বলেন, আমাদের জানা মতে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর কার্যক্রম গ্রহণ করেছে, তবে তা কার্যকর হতে একটু সময় লাগতে পারে।
পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় কুমিরমারা বন্দর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন পরিত্যক্ত ঘোষনা করা হয়েছে। বর্ষার সময় ক্লাস বন্ধ রাখতে হয়। এখানকার শিক্ষক ও অভিভাবকরা বলছেন, প্রশাসন ও রাজনীতিবিদদের কাছে তারা অনেক ধন্না দিয়েছেন কিন্তু লাভ হচ্ছেনা। পিরোজপুর জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল লতিফ মজুমদার বলেন, আমরা মহাপরিচালক মহোদয়ের নিকট বিষয়টি অবহিত করেছি, তারা আশ্বস্থ করেছেন খুব শীগ্রই একটা ব্যাবস্থা হবে।
লক্ষীপুরে শতাধিক ঝুঁকিপূর্ণ স্কুল রয়েছে। প্লাস্টার খসে পরে প্রায় আহত হচ্ছে অনেক শিক্ষার্থী। নির্মাণের কিছু দিনের মধ্যেই ব্যবহারের অযোগ্য চাঁদপুরের এই কয়েকটি বিদ্যালয় ভবন। নির্মাণসামগ্রীর মান কেমন ছিল কেউ জানে না। পটুয়াখালীতে শতাধিক স্কুলে ঝুঁকিপূর্ণ ভবন রয়েছে। জীবনের ঝুঁকিতে প্রায় রয়েছে ১৭ হাজার শিক্ষার্থী।
ইনডিপেনডেন্ট টিভি