শুক্রবার, ২৩শে আগস্ট, ২০১৯ ইং

তোকে আজকে এখানে মেরে ফেলব

সেরাকণ্ঠ ডট কম :
মে ২৭, ২০১৭
news-image

রফিউর রহমান রুপন :   গভঃল্যাব শুধু   মাদের জন্যে একটা স্কুল না আমাদের অস্তিত্বের আরেক নাম। সেই ছোটবেলা থেকে যখন এই স্কুলে পড়ি তখন থেকে দেখে আসছি এইখানে পড়া সকল সহপাঠী কিংবা বড় ভাই কিংবা শ্রদ্ধেয় শিক্ষকেরা কিংবা অভিভাবক আঙ্কেল আন্টী সবাই অনেক সহমর্মী।

বিপদে আপদে সবসময় তাদেরকে পাশে পেয়েছি ।কিন্তু আজকে যেই ঘটনা হলও তারপর থেকে মানুষ হিসেবে সত্যি লজ্জিত বোধ করছি।সময় দুপুর ১২.৩০ থেকে ১ টা।একজন মহিলা কেবলমাত্র ক্লাস ফোরে পড়ুয়া একটি ছাত্রকে বেধড়ক মাইর মারতেসে।কারণ তাও খুব সামান্য একটা ব্যাপার যে ঐ ছেলে কেবল তার ক্লাস থ্রিতে পড়া ছেলেকে কেবলমাত্র স্কাউটের কাজের জন্যে মাঠ থেকে সরার জন্যে বলসিল।মানবতা কোথায় গিয়ে পোঁছালে একজন মা আরেকজনের সন্তানকে এইভাবে মারতে পারে।

কিন্তু এই গভঃল্যাব তো চির অচেনা মনে হচ্ছে কারণ আমি যতদুর শুনেছি ওইখানে অনেক মানুষ ছিল এবং কেউই তাকে থামায়নি। অথচ আমার স্কুল লাইফের পুরোটা সময় আমি স্কুলের সবার কাছের থেকে সহযোগিতা পেয়েছি। আজকে নাকি ঐ মহিলা চিৎকার দিয়ে বলতেছিল, “তোকে আজকে এখানে মেরে ফেলব” । এই বলে সে ছেলেকে গলা চেপে শূন্যে উঠিয়ে ফেলে তখনই ছেলেটি অজ্ঞান হয়ে পড়ে। ।

ভাগ্য ভাল যে সময়মত কোন এক বড়ভাই এসে ছেলেটিকে উদ্ধার করে এবং পরবর্তী পুলিশ তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। বরতমানে সে একটি হাস্পাতালের আই সি উ তে চিকিৎসাধীন।যদি তাও নাই হত তাহলে হয়ত আমদের ছোট ভাইটা আজকে আমাদের মাঝে থাকত না।জানি না বাচ্চাটা এখন কোন অবস্থানে আছে।জানি ঐ মানব শরীরে জানোয়ারের আত্মা নিয়ে চলা মহিলার বিচার হবে কি না তবুও মন থেকে চাই তার যেন বিচার হোক যাতে দুনিয়ার কোন মানুষ শিশুদের সাথে এইরুপ আচরণ না করতে পারে।ভেবে দেখুন তো আপনার ছোট ভাই অথবা সন্তানকে কেউ গলা চেপে শূন্যে দুলে ধরে অথবা থাপ্পড়ের পর থাপ্পড় মারতে থাকে অথবার আপনার সন্তান এই রকম কারণে আই সি উ তে থাকে আপনার কেমন লাগবে।হায় মানবতা তুমি আজ লেখকের কালিতেই রয়ে গেলা
তারপরেও বলি আমরা তোমার সাথে আছি প্রান্ত।

ফেসবুক থেকে